ক্নিনচিট পেলেন নানা পাটেকর, তনুশ্রীর ক্ষোভ

প্রকাশিতঃ ১৪ জুন, ২০১৯ আপডেটঃ ৬:৪৮ অপরাহ্ণ

যৌন হেনস্থার দায়ে অভিযুক্ত অলোক নাথের পর এবার ক্নিনচিট পেলেন নানা পাটেকর। প্রবীণ এই অভিনেতার বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার কোনও প্রমাণ নেই। মুম্বাই হাইকোর্টে বুধবার এই চার্জশিট দিল মুম্বই পুলিশ। এই চার্জশিট পেশের সঙ্গে সঙ্গেই অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্তের আনা যৌন হেনস্থার অভিযোগ থেকে মুক্তি পেলেন নানা।

১০ বছর আগে ‘হর্ন ওকে প্লিজ’ ছবিতে একসঙ্গে কাজ করার সময় নানা নাকি তনুশ্রী দত্তের সঙ্গে অশালীন আচরণ করেছিলেন। মুম্বাই পুলিশের কাছে এমনই অভিযোগ জানিয়েছিলেন অভিনেত্রী। বুধবার বি সামারি রিপোর্টে পুলিশ জানায়, নানার বিরুদ্ধে কোনও প্রমাণ জোগাড় করা সম্ভভ হয়নি। ফলে, এই মামলা চালাতে মুম্বাই পুলিশ অপারগ।

প্রসঙ্গত, অভিযুক্তের বিরুদ্ধে পুলিশ বি সামারি রিপোর্ট তখনই পেশ করে যখন তার বিরুদ্ধে কোনও প্রমাণ জোগাড় করা সম্ভব হয় না।

যদিও তনুশ্রী দত্তের আইনজীবী নীতিন শতপতে জানিয়েছেন, তার কাছে প্রশাসনের পক্ষ থেকে এখনও এই ধরনের কোনও চিঠি পাঠানো হয়নি। তবে বোম্বে হাইকোর্ট কোনও পদক্ষেপ নেওয়ার আগে এই বি সামারির বিরুদ্ধে পিটিশন দাখিল করবেন। একই সঙ্গে তার অভিযোগ, এভাবেই নানাকে রক্ষা করছে পুলিশ। তাকে বাঁচাতেই বি সামারি রিপোর্ট পেশ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে তনুশ্রী দত্ত বলেছেন, জানতাম এরকমটাই হবে। আমি এতে একটুও অবাক হইনি। ভারতে আমরা নারীরা সমাজের থেকে প্রশাসনের থেকে এই ধরনের ব্যবহার পেতেই অভ্যস্থ। অলোক নাথ যদি ধর্ষণের পরেও বেকসুর খালাস পেয়ে সিনে দুনিয়ায় স্বমহিমায় ফিরতে পারেন তাহলে নানা কেন পারবেন না! একদিন আমার সঙ্গে হয়েছে, তা এবার বলিউডে কাজ করতে আসা নতুন অভিনেত্রীদের সঙ্গে রোজ ঘটবে। সাজানো মিথ্যে সাক্ষী জোগাড় করে পার পেয়ে গেলেন নানা। যদিও তার বিশ্বাস, তিনি সুবিচার পাবেনই।

প্রসঙ্গত, বলিউডের এই অভিনেত্রী থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে বিভিন্ন ক্ষেত্র থেকে নির্যাতীত নারীরা মুখ খুলতে থাকেন ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রামে। এই আন্দোলনের প্রভাবে বলিউডের একাধিক প্রযোজক-পরকিুচালক-অভিনেতার পাশাপাশি যৌন হেনস্থায় অভিযুক্ত হন রাজনৈতিক নেতা-মন্ত্রীরাও।

আন্দোলনের মুখ হওয়ার আগে দীর্ঘদিন তনুশ্রী দত্ত বলিউড থেকে দূরে ছিলেন। এরপর গত বছরের সেপ্টেম্বরে তিনি নানার বিরুদ্ধে মুখ খোলেন। প্রশাসনের কাছে তার অভিযোগ, নানা ভীবে নানা পাটেকর সেটে তাকে হেনস্থা করতেন। তার চাপে পড়েই নানার সঙ্গে তাকে অন্তরঙ্গ নাচের দৃশ্যে অংশ নিতে হয়েছিল।

যদিও তনুশ্রীর তোলা এই অভিযোগ নস্যাত করে দিয়েছেন অভিনেতা। উল্টো, নিঃশর্ত ক্ষমা চাওয়ার জন্য তিনি আইনি চিঠি পাঠান অভিনেত্রীকে।

এসএইচ-১২/১৩/১৯ (বিনোদন ডেস্ক, তথ্য সূত্র: এনডিটিভি)