চুল না কেটে ৪০ বছর

প্রকাশিতঃ ১৮ জুলাই, ২০১৯ আপডেটঃ ২:৫৮ অপরাহ্ণ

৪০ বছর ধরে মাথার চুল কাটাননি তিনি। শুধু তাই নয়, এই দীর্ঘ সময়ে একবারের জন্যও চুল ধুয়ে ফেলেননি। সৃষ্টিকর্তার আশীর্বাদ হিসেবে মনে করেন এই চুলকে। বর্তমানে জট বাঁধা এই মাথার চুল লম্বা হয়েছে ছয় ফুট।

অদ্ভুত জটা চুলওয়ালা এই ব্যক্তির নাম সকাল দেব। বয়স ৬৩ বছর। ভারতের পূর্বাঞ্চলীয় বিহার প্রদেশের মুঙ্গার জেলার বাসিন্দা তিনি। মাথার ওপর পাগড়ির মতো পেঁচিয়ে রাখেন লম্বা চুলের সেই জট। তিনি বলেন, ৪০ বছর আগে এক রাতে ঘুমিয়েছিলেন তিনি। ঘুম থেকে ওঠে দেখতে পান তার মাথার চুল জট বেঁধে গেছে। এটাকে তিনি স্বর্গীয় আশীর্বাদ হিসেবে মনে করেন।

সকাল দেব বলেন, স্বপ্নে সৃষ্টিকর্তা এসে তাকে চুল না কাটার জন্য বলেন। সেই রাতের পর থেকে এখন পর্যন্ত সৃষ্টিকর্তার এ আদেশের অমান্য করেননি তিনি।

সৃষ্টিকর্তার প্রতি ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ হিসেবে সেদিন থেকেই ধূমপান এবং মদ্যপান ছেড়ে দেন সকাল দেব। ভারতে স্বঘোষিত অনেক সাধু আছেন; যাদের মাথায় দীর্ঘ ও জটা চুল। কিন্তু অন্যান্য সাধুর চেয়ে সকাল দেবের চুলের জটের ধরন আলাদা। বাড়ি থেকে বের হলেই মাথায় বিশাল চুলের সেই স্তূপ তিনি বাঁধেন সাদা কাপড় দিয়ে।

যদি এভাবে না বেঁধে বের হন; তাহলে চুলের জট তার পেছনে রাস্তায় মাটি স্পর্শ করে। পবিত্র চেহারা ও বিনয়ী ব্যবহারের জন্য প্রতিবেশীরা তাকে ‘মহাত্মা জি’ নামেও ডাকেন।

সন্তানহীন দম্পতিদের চিকিৎসাও করেন তিনি। সন্তান লাভের আশায় সকাল দেবের দেয়া ওষুধ সেবন করেন নিঃসন্তান দম্পতিরা। এ জন্য নিজ এলাকায় তার ব্যাপক পরিচিতি রয়েছে। তার কাছে চিকিৎসা নিতে অনেক দূর-দূরান্ত থেকে লোকজন আসে। অনেকেই তার সঙ্গে ছবি তোলেন। সবার সঙ্গে বিনয়ী এবং হাসিমুখে নম্র আচরণ করেন সকাল দেব।

সকাল দেব ভারতে বন বিভাগে প্রায় ৩১ বছর সরকারি কর্মকর্তা হিসেবে চাকরি করেছেন। তিন ছেলে ও তিন মেয়ে, সাত নাতি-নাতনি ও স্ত্রী রুপিয়া দেবীসহ বিহারে বসবাস করেন তিনি। অনাকাঙ্ক্ষিত এই বদলে যাওয়া নিয়ে স্ত্রী রুপিয়া দেবীর কোনো সমস্যা নেই বলে জানিয়েছেন সকাল দেব।

বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা জট চুলের অধিকারী কেনীয় বংশোদ্ভূত যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার বাসিন্দা আশা ম্যান্ডেলা। ৫৫ বছরের ম্যান্ডেলা ২০১৮ সালে ১১০ ফুট লম্বা চুলের অধিকারী হিসেবে বিশ্ব রেকর্ড গড়েন।

এসএইচ-০২/১৮/১৯ (অনলাইন ডেস্ক)