তৃতীয় বিয়ে করায় স্বামীকে মারধর

প্রকাশিতঃ ১৩ February, ২০২০ আপডেটঃ ৩:০৭ PM

আমাদের সমাজে পুরুষেরা ও নিজের ঘরে স্ত্রীর কাছে নির্যাতিত হচ্ছে প্রতিনিয়ত। লজ্জায় ক্ষোভে কেউ মূখ খুলতে চায়না এ বিষয়ে। স্বামী তার পিতামাতার সাথে যৌথ পরিবারে থাকতে চাইলে স্ত্রী চায় একক পরিবার। অনেক স্ত্রী আছে যারা শাশুড় শাশুড়ি কে নিয়ে মিলেমিশে থাকতে পছন্দ করে। অনেকে করেনা।

এ সব নিয়ে ঝগড়াঝাঁটি হয়না এমন পরিবার আমাদের সমাজে বলতে গেলে খুবই কম। আবার অনেক ক্ষেত্রে মেয়ের মা, বোনেরা, মেয়ে পক্ষ অনর্থক গায়ে পড়ে অন্যের সংসারে আগুনজ্বলানোতে ব্যস্ত থাকে। এতে কোন প্রতিবাদ হলে স্বামীর উপর চলে প্রতিনিয়ত মানসিক নির্যাতন। অনেকের নিরবে সহ্যগুণ থাকে, অনেকের থাকেনা। আবার অনেক এ নিয়ে নানা অপ্রীতিকর ঘটনা ও ঘটায়, আত্মহত্যা কিংবা খুন খারাবিসহ। এধরনের একটি ঘটনা ঘটেছে পাকিস্তানের করাচিতে।

তৃতীয় বিয়ে করায় স্ত্রী হাতে মার খেয়েছেন স্বামী।এ ঘটনায় স্ত্রী এবং তার পরিবারের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন ওই স্বামী। মারধরে আহত হওয়ার পর তাকে আব্বাসি শাহেদ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

জানা গেছে, তার স্বামী তৃতীয় বিয়ে করেন। এতে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে স্বামীকে মারধর করেন প্রথম স্ত্রী।

সংবাদমাধ্যমকে ওই স্বামী বলেন, তিনি আমার প্রথম স্ত্রী। তার সঙ্গে আমার সম্পর্ক শেষ হয়ে গেছে। কিছুদিন আগেই এ ঘটনা ঘটেছে। আমি এ বিষয়ে আইনি নোটিশ পাঠাব। এ বিষয়ে আমার আইনজীবী তাদের সঙ্গে কথা বলবেন।

অপরদিকে তার স্ত্রীর দাবি, তার স্বামী ২০১৮ সালে গোপনে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। সম্প্রতি তৃতীয় বিয়ের সময় ধরা পড়েন তিনি। ১৯৬১ সালের মুসলিম পারিবারিক আইন অনুযায়ী, দ্বিতীয় বিয়ের সময় প্রথম স্ত্রীর লিখিত অনুমতির প্রয়োজন হয়।

এসএইচ-০৬/১৩/২০ (অনলাইন ডেস্ক)