হজমশক্তি বাড়ায় গুড়ের চা

প্রকাশিতঃ ৭ November, ২০১৯ আপডেটঃ ২:৪৭ PM

চা খেতে কমবেশি সবাই পছন্দ করেন। অফিসে, কাজের ফাঁকে কিংবা আড্ডায় চা না হলে যেন চলেই না। তবে চায়ের সঙ্গে বারবার চিনি দিলেই নানা ধরনের শারীরিক সমস্যার তৈরি হয়।

চিকিৎসকদের মতে, দৈনন্দিন খাদ্যাভাসে যত কম চিনি খাওয়া যায়, ততই তা স্বাস্থ্যের ভালো।

যাদের ঘন ঘন চা খাওয়ার অভ্যাস আছে অথচ ডায়াবেটিস নেই তারা চিনির বিকল্প হিসেবে গুড় খেতে পারেন। প্রাকৃতিক পদ্ধতিতে তৈরি গুড় শরীরের নানা উপকার করে। গুড় খেলে যেসব উপকারিতা পাওয়া যায়-

১. চিনির চেয়ে অনেক বেশি স্বাস্থ্যকর হচ্ছে গুড়। এতে থাকা বিভিন্ন খনিজ যেমন- ফসফরাস, আয়রন, ম্যাগনেসিয়াম, পটাশিয়াম শরীরের জন্য দারুণ উপকারী। শীতকালে গুড় খেলে শরীর বেশ গরমও থাকে। যারা কোষ্ঠ কাঠিন্যে ভোগেন, তাদের জন্যও গুড় বেশ কার্যকরী। এটি হজমের প্রক্রিয়া উন্নত করে।

২. রক্তে হিমোগ্লোবিনের অন্যতম উপাদান হলো আয়রন। গুড়ে প্রচুর পরিমাণে আয়রন থাকে। প্রতিদিন গুড় খেলে শরীরে আয়রনের পরিমাণ বাড়ে। ফলে ফুসফুস থেকে লোহিত রক্ত কণিকার সাহায্যে সারা শরীরে অক্সিজেন মিশ্রিত রক্ত পৌঁছতে পারে। এ কারণে যারা রক্তশূন্যতায় ভুগছেন, তাদের জন্য গুড় খুব উপকারী।

৩. গুড়ের সঙ্গে আদা মিশ্রিত চা দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়, কোল্ড অ্যালার্জি থেকে দূরে রাখে।

৪. গুড়ে থাকা পর্যাপ্ত অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ত্বক সতেজ রাখতে সাহায্য করে।

৫. গুড় বিপাকের হার বাড়ায়। সেই সঙ্গে এটি শরীরের ওজন কমাতেও কার্যকরী।