কোপা আমেরিকা ফুটবল টুর্নামেন্ট শুরু শনিবার

প্রকাশিতঃ ১৪ জুন, ২০১৯ আপডেটঃ ৩:০২ অপরাহ্ণ

শুক্রবার দিবাগত রাত, শনিবার বাংলাদেশ সময় ভোর সাড়ে ৬টায় শুরু হবে লাতিন আমেরিকা অঞ্চলের ফুটবল শ্রেষ্ঠত্বের টুর্নামেন্ট কোপা আমেরিকা। স্বাগতিক দেশ ব্রাজিলের ৫ শহরের ৬টি স্টেডিয়ামে হবে পুরো টুর্নামেন্টের ২৬টি ম্যাচ।

কোপা আমেরিকার ইতিহাসের ৪৬তম আসর এটি। লাতিন অঞ্চলের সবচেয়ে জনপ্রিয় দুই দল ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা হলেও, কোপা আমেরিকায় আধিপত্য অবশ্য উরুগুয়ের। টুর্নামেন্টের ইতিহাসের সর্বোচ্চ ১৫ বারের চ্যাম্পিয়ন তারা।

তবে খুব পিছিয়ে নেই আর্জেন্টিনা। সবশেষ ১৯৯৩ সালে কোপা আমেরিকার চ্যাম্পিয়ন হলেও, তাদের ট্রফি কেবিনেটে শিরোপা রয়েছে ১৪টি। ব্রাজিল কোপা জিতেছে ৮ বার। ২ বার করে কোপা জিতেছে প্যারাগুয়ে, চিলি এবং পেরু।

এর মধ্যে চিলি আবার নিজেদের দুইটি শিরোপাই জিতেছে সবশেষ দুই আসরে। সে দুই আসরেই ফাইনাল ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ ছিলো আর্জেন্টিনা। এবারের আসরে হ্যাটট্রিক শিরোপার মিশনে নামবে তারা। এছাড়া ১ বার করে কোপা আমেরিকা জিতেছে কলম্বিয়া এবং বলিভিয়া।

এসব পরিসংখ্যানে পরিবর্তন আসতে পারে আগামী ৭ জুলাইয়ের পর, আবার প্রথমবারের মতো শিরোপা জিততে পারে নতুন কোনো দল। শনিবার ভোরে স্বাগতিক ও ব্রাজিলের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে পর্দা উঠবে টুর্নামেন্টের। গ্রুপ পর্ব ও নকআউট পর্বের ২৬ ম্যাচের লড়াই শেষে আগামী ৭ জুলাই শিরোপার লড়াইয়ে ফাইনালে মুখোমুখি হবে আসরে সেরা দুই দল।

সাধারণত ১২ অথবা ১৬ দল নিয়ে হয়ে থাকে কোপা আমেরিকা। সে ধারাবাহিকতায় এবারের টুর্নামেন্টেও থাকছে ১২টি দল। দক্ষিণ আমেরিকান কনমেবল থেকে ১০টি দল এবং এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন থেকে ২টি দল নিয়ে করা হয়েছে ১২টি দল।

যেখানে আমন্ত্রণমূলক দল হিসেবে অংশ নেবে এশিয়ান ফুটবল ফেডারেশনের দুই দেশ জাপান ও কাতার। মূলত ১২ দল নিয়ে টুর্নামেন্টের ফরম্যাট দাঁড় করানোর জন্যই জাপান ও কাতারকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে কনমেবল। ১২টি দলকে ৩টি আলাদা গ্রুপে ভাগ করা হয়েছে।

টুর্নামেন্টের ‘এ’ গ্রুপে স্বাগতিক ব্রাজিলের সঙ্গে রয়েছে বলিভিয়া, পেরু এবং ভেনিজুয়েলা। ‘বি’ গ্রুপে আর্জেন্টিনার তিন প্রতিপক্ষ কলম্বিয়া, প্যারগুয়ে এবং কাতার। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন চিলির ‘সি’ গ্রুপের বাকি তিন দল হলো জাপান, ইকুয়েডর এবং উরুগুয়ে।

এ তিন গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন এবং রানারআপ ছয় দল সরাসরি চলে যাবে কোয়ার্টার ফাইনালে। এছাড়া সুযোগ থাকবে গ্রুপের তৃতীয় হওয়া দুই দলের। এক্ষেত্রে তিন গ্রুপের তৃতীয় হওয়া তিনদলের মধ্যে সেরা ২টিকে দেয়া হয়ে পরবর্তী রাউন্ডের টিকিট। এরপর নকআউট পদ্ধতিতে চলবে বাকি টুর্নামেন্ট।

এসএইচ-০৩/১৪/১৯ (স্পোর্টস ডেস্ক)