চিটাগাং ভাইকিংসের মালিকানা খুঁজছেন নান্নু-আকরাম

প্রকাশিতঃ ১৫ August, ২০১৯ আপডেটঃ ১১:৩৫ PM

আগের কয়েক আসরের ফ্র্যাঞ্চাইজি ‘ডিবিএল’ গ্রুপ যে এবার আর দল পরিচালনা করবে না, তারা যে তাদের মালিকানা স্বত্ব তুলে নিয়েছে- সেটা পুরনো খবর। ডিবিএল গ্রুপ আর চিটাগাং ভাইকিংসের ফ্র্যাঞ্চাইজি থাকবে না, আনুষ্ঠানিকভাবে এ খবর জানার পর বিসিবিও নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজি আহ্বান করেছে।

এখন প্রশ্ন উঠেছে, চিটাগাং ভাইকিংসের নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজি হবেন কে বা কারা? উৎসাহী ক্রিকেট অনুরাগি, শিল্পপতি বা কোন বিজনেস হাউজ কি আছে? এ প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে গিয়ে মিলেছে এক অন্যরকম তথ্য। চট্টগ্রামের দুই সূর্যসন্তান, চট্টগ্রামের ক্রিকেট ইতিহাসের দুই মহীরুহ মিনহাজুল আবেদিন নান্নু ও আকরাম খান চিটাগাং ভাইকিংসের নতুন মালিকানা খোঁজায় কার্যকর ভূমিকা রাখছেন।

তবে দুজন এক সঙ্গে নয়, আলাদা আলাদা। ভিন্ন ভিন্ন কর্পোরেট হাউজকে সম্পৃক্ত করার কাজে ব্যতিব্যস্ত এখন নান্নু-আকরাম। তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, দুজনই চাচ্ছেন চিটাগাং ভাইকিংস যেন ভাল দল হয়। এ বিষয়ে তাদের দুজনারই অনুভব ও উপলব্ধি এক।

নান্নু ও আকরামের কথা, দেশের ক্রিকেটে চট্টগ্রামের ভূমিকা ও অবদান অনেক। চট্টলাবাসী ক্রিকেটকে ভালবাসে। বন্দর নগরীসহ পুরো চট্টগ্রামে ক্রিকেট বেশ জনপ্রিয়। এই জেলা শহর থেকে শুরু করে পুরো বৃহত্তর চট্টগ্রাম থেকে প্রচুর জাতীয় ক্রিকেটারেরও জন্ম হয়েছে।

নান্নু, নোবেল, আকরাম, মাসুম, শহীদ, নাফিস, আফতাব আর তামিমের মত এক ঝাঁক তারকা ক্রিকেটারের বেড়ে ওঠা ও ক্রিকেটে হাতে খড়ি চট্টগ্রামেই। স্বাধীনতার পর বিশেষ করে ৮০’র দশক থেকে এখন পর্যন্ত জাতীয় দল মানেই চট্টগ্রামের অন্তত এক বা একাধিক নামী তারকার দলে থাকা। কাজেই সব কিছু মিলে বিপিএলে চট্টগ্রামের একটি শক্তিশালী ও ভাল দল থাকা দরকার।

সে উপলব্ধি থেকেই এবার নান্নু ও আকরাম নিজেদের মত করে ফ্র্যাঞ্চাইজি খুঁজছেন। এর মধ্যে বিসিবি পরিচালক ও ক্রিকেট অপারেশনস কমিটি প্রধান আকরাম খান চাচ্ছেন চট্টগ্রামের সিটি মেয়র আ জ ম নাসিরকে দল পরিচালনায় সম্পৃক্ত করতে। আকরামের বিশ্বাস ও অনুভব, আ জ ম নাসির যুক্ত হলে একটা ভাল দল গড়া সম্ভব হবে।

আকরামের কথা, ‘চট্টগ্রামের একটি ভাল ও শক্তিশালী দল থাকুক আমি সবসময় এটা চাই। কিন্তু শুধু চাইলেই তো আর হবে না। ভাল দল গড়তে সবার আগে দরকার নামী তারকাসহ এক ঝাঁক মেধাবী ও ভাল ক্রিকেটারকে দলে ভেড়ানো। সেই কাজের জন্য দরকার প্রচুর অর্থ। আমার পক্ষে তো আর অত বিপুল পরিমাণ অর্থ দেয়া সম্ভব না। তাই চাচ্ছি নাসির ভাইকে (মেয়র আ জ ম নাসির) যুক্ত করতে।’

আকরাম জানিয়েছেন, তিনি চট্টগ্রাম সিটি কর্পোারেশনের মেয়র নিবেদিত প্রাণ ক্রীড়া সংগঠক এবং ক্রিকেট অন্তঃপ্রাণ আ জ ম নাসির ভাইকে ফ্র্যাঞ্চাইজি হিসেবে পেতে আগ্রহী। তবে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম মহানগরীর মেয়র এবং বিসিবির পরিচালক পদে আসীন আ জ ম নাসির সরাসরি ফ্র্যাঞ্চাইজি হতে পারবেন কি-না বা আদৌ হবেন কি-না তা নিশ্চিত করতে পারেননি আকরাম।

সংবাদ মাধ্যমকে আকরাম খান জানান, ‘নাসির ভাই (আ জ ম নাসির) ভাইয়ের সাথে কথা বলেছি। তাকে অনুরোধ করেছি দল পরিচালনার জন্য। তবে তিনি ব্যস্ত। শেষ পর্যন্ত তিনি ফ্র্যাঞ্চাইজি হবেন কি-না কিংবা নৈপথ্য কারিগর হিসেবে অর্থায়নের কাজ করে দেবেন কি-না বা দিতে পারবেন কি-না, তা নিশ্চিত করে বলতে পারছি না।’

ঈদের ছুটিতে চট্টগ্রামে বর্তমানে চট্টগ্রামে নিজ বাড়ীতে অবস্থানরত আকরাম খান আজ কোন এক সময় চট্টগ্রাম মেয়র আ জ ম নাসিরের সাথে চিটাগাং ভাইকিংসের ফ্র্যাঞ্চাইজি হবার বিষয়ে কথা বলবেন বলেও জানিয়েছেন। ওদিকে চট্টগ্রামের আরেক নামী ক্রিকেট ব্যক্তিত্ব বর্তমান জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক মিনহ্জুল আবেদিন নান্নুও কায়মনে চান চিটাগাং ভাইকিংস ভাল ও শক্তিশালী গড়ুক।

নান্নুও নৈপথ্যে থেকে অর্থায়নে ভাল কর্পোরেট হাউজের সন্ধানে। আজ সকালে জাগো নিউজের সঙ্গে আলাপে নান্নু জানান, ‘আমি একটি কর্পোারেট হাউজের সঙ্গে কথা বলছি । দেখা যাক তারা সম্পৃক্ত হন কি-না?’

দুজনার কথায় পরিষ্কার ইঙ্গিত আগামী দুই থেকে তিন দিনের ভেতরেই ফ্র্যাঞ্চাইজি চূড়ান্ত হয়ে যাবে। অবশ্য তা না হয়ে উপায়ও নেই। কারণ আগামী ১৮ আগস্ট থেকে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর সাথে বৈঠকে বসতে শুরু করবে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল।

এসএইচ-১৮/১৫/১৯ (স্পোর্টস ডেস্ক)